বর্তমান সময়ঃ-10 April, 2020

রিলিজ হলো Huawei এর নতুন অপারেটিং সিস্টেম হারমনি ওএস।

প্রথম বারের মতো যখন গুগল হুওয়াওয়ে এর লাইসেন্স টেম্পরারি ব্যান করে দেয় ইউস থেকে তখন কোন পথ না পেয়ে হুওয়াওয়ে প্রথম বারের মতো তাদের গোপন ওএস মিডিয়া তে জানান। যার নাম কি না হারমনি ওএস। কী থকাছে এর স্পেশালাটি? এটি কী গান বাজনা তে এক্সপার্ট একটি ওএস হবে? আপনাদের সব প্রশ্নের জ্ববাব দিবে বাংলাপেন.কম সাথে আছি আমি ইনাদ ইসলাম৷ লেট’স বিগেইন

হারমনি ওএস একটি আসন্ন উন্মুক্ত উৎস মাইক্রোকার্নেল-ভিত্তিক ডস্ট্রিবিউটেড অপারেটিং সিস্টেম। যা ০৯ আগষ্ট ২০১৯ সালে Huawei দ্বারা তৈরিকৃত একটি অপারেটিং সিস্টেম বা ওএস। এই উন্মুক্ত প্ল্যাটফর্মটি সাধারণত ইন্টারনেট অব থিংসস (আইওটি) ডিভাইসগুলির জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।

হারমনি ওএস এর ইতিহাস

এক প্রতিবেদনে জানা গিয়েছে যে, হুয়াওয়ে একটি অভ্যন্তরীণ  অপারেটিং সিস্টেম ডেভলপ করা শুরু করেছিল ২০১২ সালে। ২০১৯ সালের ০৯ আগষ্ট এটি প্রাথমিকভাবে মুক্তি পায়। এবং ২০১৯ সালের মে মাসে হুয়াওয়ে ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থাৎ আমেরিকার আরোপিত নিষেধাজ্ঞাগুলো লঙ্ঘন করে৷ যার ফলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার রফতানি নিষেধাজ্ঞার শিকার হওয়ার পরে তারা হারমনি ওএস দ্রুত চালুর উদ্যোগ নেয়। হুয়াওয়ের নির্বাহী রিচার্ড ইউ ভবিষ্যতে স্মার্টফোন পণ্যগুলিতে অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকলে কোনও ইন-হাউজ প্ল্যাটফর্মকে “প্ল্যান বি” হিসাবে বর্ণনা করেন।

হারমনি ওএস এর ডিভাইস

শুরুতে হুওয়াওয়ে চীনা বাজার কে লক্ষ্য করে কিছু নতুন ডিভাইস বাজারে ছাড়ার কথা জানান। হুওয়াওয়ে এর সাব ব্রান্ড “অনর” এর স্মার্ট টিভিগুলোর মধ্যে একটি টিভি যার নাম “অনার ভিশন লাইন” হারমনি ওএস – এ চালানোর জন্যে প্রথম ভোক্তা ইলেক্ট্রনিক্স হিসেবে উন্মোচন করেন।

 হারমনি ওএস এর বৈশিষ্ট্য

যদি ধরি এর নিরাপত্তার কথা তবে জানা গিয়েছে যে, এই অপারেটিং সিস্টেম এ সবচেয়ে বেশি যে দিকটায় নজর দিয়েছে তা হলো নিরাপত্তা। আর অন্যে দিকে এর অন্যতম এবং গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হলো এতদিন প্রত্যেক টি ডিভাইসের জন্যে ব্যবহার করা হতো আলাদা আলাদা অপারেটিং সিস্টেম। বুঝেন্নি? অর্থাৎ স্মার্ট ফোন এ ব্যবহার করা হতো একটি অপারেটিং সিস্টেম যার মাধ্যমে শুধু স্মার্ট ফোনগুলোই চলত। আবার স্মার্ট টিভি, স্মার্ট ঘড়ি এবং স্মার্ট স্পিকার এর জন্যে ব্যবহার করা হতো আলাদা আলাদা অপারেটিং সিস্টেম কিন্তু হারমনি ওএস যেকোন ডিভাইস এ চলবে আলাদা কোন ওএস এর প্রয়োজন পড়বেনা।

যেহেতু নিরাপত্তার দিকে সবচেয়ে বেশি নজর দেয়া হয়েছে তাই এই ক্ষেত্রে বলা যায় যে যেকোন প্রকার লেনদেন এর ক্ষেত্রে এটি অনেক বেশি নিরাপদ। যেহেতু একই ওএস অনেক গুলো ডিভাইস একই ওএস দিয়ে চলবে এই ক্ষেত্রে এই ওএস সবগুলো ডিভাইস কে একসাথে কানেক্ট করবে একে অপরের সাথে এই ক্ষেত্রে অনেক তথ্য একত্র করার প্রয়োজন পড়বে আর এখানে রয়েছে তথ্য চুরি হবার ভয় আর এই চুতি হবার ভয় কে টেক্কা দিয়ে দিয়েছে হারমনি ওএস। 

শেষ কথা

দিনে দিনে প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ছে। আর সাথে সাথে উন্নত হচ্ছে প্রযুক্তি হয়তো এই ওএস সরাসরি পাবলিশ হবার পর। যখন এটি মানুষের হাতে হাতে আসবে। তখন হয়তো পতন ঘটবে এন্ড্রয়েড এর। যতই উন্নত হবে আমরা পাবো আরও বেশি ফিচার। আপনাদের এতক্ষন ছিলাম আমি ইনাদ ইসলাম , বাংলাপেন.কম। ধন্যবাদ

Share
ইনাদ ইসলাম

একজন প্রোফেশনাল ওয়েব ডেভলপার। জীবনের দ্বিতীয় ভালোবাসা প্রোগ্রামিং।

One Ping

  1. Pingback: কীভাবে একটি লিংক শর্টেনার সাইট বানাতে হয় সাথে ১৫ হাজার টাকার স্ক্রিপ্ট একদম ফ্রিতে - বাংলাপেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *