বর্তমান সময়ঃ- 8 April, 2020

মাত্র ৩০ হাজার টাকা দিয়ে বিল্ড করুন বেস্ট এবং মিড কনফিগার্ড গেমিং পিসি।

হোয়াট’স আপ, কী অবস্থা? আশা করি ভালো। তো পোস্টের টাইটেল দেখেই বুঝতে পারছেন কী সম্পর্কে বলতে চাইছি।

আজ আমি একটা ৩০ হাজার টাকার মধ্যে কীভাবে একটা মিড এবং বেস্ট কনফিগার্ড পিসি বিল্ড করবেন তা সম্পর্কে আপনাদের একটু সাহায্য করবো। তো দেখুন আপনি যখন আপনার মাথায় এটা আনেন যে আমি একটা পিসি কিনবো। ঠিক তখনি প্রথমই আসবে বাজেট এর কথা এবং তারপর যা আসবে তা হলো প্রোসেসর, মাদারবোর্ড এবং র‍্যাম কী হবে? তাইনা? আচ্ছা দাঁড়ান।

যখনি আপনার মাথায় আসবে যে আমি একটা পিসি কিনবো তখনি আমি আপনার মাথায় একটা থাপ্পড় দিয়ে মনে করিয়ে দিতে চাই যখন আপনি একটা পিসি কিনতে বা ক্র‍য় করতে যাবেন তখন এক পিসিতে আপনার মনের সবকিছুই আপনি পাবেন না। দেখবেন প্রসেসর ভালো কিন্তু আপনি চাইসেন ৮ জিবি র‍্যাম কিন্তু তা হলোনা বা এটা হলে অন্য কোন কম্পনেন্ট বা ইনক্রিমেন্টস গুলো মিল্ল না তাহলে আমার কথা হলো এমন হলে আপনি ক্র‍য় করতে যাবেন কেন? আর তাই আপনার উচিত বিল্ড করা এতে খরচ অনেক আংশে কমে যাবে ইনশাল্লাহ।

তো আসেন চলে যাই কম্পনেন্ট গুলোতে তো কীভাবে বিল্ড করবেন একটা পিসি মনের মতো। তো প্রথমে ধরে নেই আপনার বাজেট ৩০-৩৫০০০ টাকা আর আপনি এর বেশি এক টাকাও বাড়াতে পারবেন্না। এখন আরও ধরে নেই আমি যেই কম্পনেন্ট গুলো দেখাবো এগুলোই আপনি চাইছেন তাহলে চলুন কীভাবে করবেন শুরু করি।

প্রথমে আপনার আশে পাশের নিকটবর্তী যেকোন কম্পিউটার হার্ডওয়্যার সেলিং দোকানে যাবেন। সেখানে গিয়ে নিচের কম্পনেন্ট গুলো ক্রয় করবেন। নিচে আমি ব্যাখ্যা করে দিলাম কম্পনেন্ট গুলোরঃ-

  1. apuR3 2200G APU:- এটি হলো RYZEN 3 2200G APU। এটি একটি AMD প্রসেসর। এটি ৪*৪*৪ এর থ্রেড বিশিষ্ট একটি APU। এটির বুস্ট ক্লোক হলো ৩.৭ এবং এর বেস ক্লোক ৩.৫। যারা ক্লোক স্পিড বুঝেন্না তাদের জন্যে বলে দেই ক্লোক স্পিড হলো একটি স্পিড যার মাধ্যমে প্রসেসর এর স্পিড নিরুপন করা হয়। একটি প্রসেসর এর Clock speed সাধারণত MHz (megahertz) অথবা GHz (gigahertz) এ প্রকাশ করা হয়। 2.0GHz clock speed এর একটি কম্পিউটার ২,০০০,০০০,০০০ cycle per second এ চলে। এত বিস্তারিত বলবনা যদি বিস্তারিত জানতে হয় তবে কমেন্ট এ জানাবেন আমি আরেকটি পোস্ট করে দিব বিস্তারিত ভাবে। আর এটির বর্তমান বাজার মূল্য ১০০০০ টাকা মাত্র।
  2. motherboard
    ASUS EX-A320M:- এটি একটি গেমিং মাদারবোর্ড। আমরা এটি ক্রয় করবো কারণ ভবিষ্যৎ এ যখন আমাদের হাতে টাকা আসবে তখন চাইলে আমরা আর র‍্যাম এটিতে যোগ করতে পারবো কারণ এটি একটি চার র‍্যাম স্লট বিশিষ্ট একটি গেমিং মাদারবোর্ড। তো পরবর্তী তে যদি র‍্যাম বড় করতে চান তখন করতে পারবেন ইনশাল্লাহ। এর দাম হলো ৭২০০ টাকা।
  3. ramgeil evo spear ram:- যেহেতু আমাদের বাজেট কম তাই আমরা Geil evo Spear এর ৪ জিবি এডিশন এর দুটি বিস্কিট ব্যবহার করব। এই র‍্যাম গুলো ddr4- 2400mhz বিশিষ্ট র‍্যাম। এদের দাম হলো ৬৮০০ টাকা মাত্র।
  4. ssdADATA SSD:- এটি হলো আমাদের স্টোরেজ। দোকান কে বলবেন আপনাকে একটি Adata su 650 ssd 120gb দিতে। যার দাম ৩০০০ টাকা।
  5. casingCasing:- এটি একটি কেসিং এর নাম Golden Field 6021b যেখানে আমাদের মাদারবোর্ড এবংং অন্যান্য কম্পনেন্ট থাকবে। এটিতে বিল্ট ইন পাওয়ার সাপ্লাই থাকার কারণে পাওয়ার সাপ্লাই কেনার প্রয়োজন নেই। এই কেসিং এর দাম ২৭০০ টাকা

কেনা কাটা শেষ এবার দোকানি কে বলেন আমার এগুলো সেটাপ করে দিন। এবার বাসায় এসে ইউটিউব দেখে বা নিজে পারলে অথবা কাওকে দিয়ে তার গুলো মনিটর এর সাথে এড করে দিন। শেষ এবার হিসাব করুন যে এই কনফিগার্ড এর পিসি রেডিমেড কিনতে গেলে কত লাগতো এবং এখন কত লাগলো। যদি কম লেগে থাকে আমাকে একটা ধন্যবাদ দিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ

Share
ইনাদ ইসলাম

একজন প্রোফেশনাল ওয়েব ডেভলপার। জীবনের দ্বিতীয় ভালোবাসা প্রোগ্রামিং।

One Ping

  1. Pingback: উইন্ডোজ দিয়ে বের করুন সেইভ করা ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড – SDK-9

4 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *